বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০, ০৯:৫৫ অপরাহ্ন
নোটিশ ::
প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। বিস্তারিত জানতে : 01712-758460 | প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। বিস্তারিত জানতে : 01712-758460 | প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। বিস্তারিত জানতে : 01712-758460 |
শিরোনাম ::
তেজগাঁওয়ে এপেক্স কারখানায় ভয়াবহ আগুন প্রতি কেজি আলু আজ থেকে ৩৫ টাকা বিক্রি হবে । পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌ-রুটে পারাপারে অপেক্ষায় সহস্রাধিক যানবাহন যাত্রী দুর্ভোগ । মেখল মাদরাসার সাবেক উস্তাদ, প্রবীণ আলেম মুফতি গোলাম কাদেরের ইন্তেকাল ঘরের বাইরে বের হতে মাস্ক ব্যবহার করুন : প্রধানমন্ত্রী স্পিকারের সঙ্গে বাংলাদেশের নব নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার সাক্ষাৎ ফের যুক্তরাষ্ট্র যাচ্ছেন আলোচিত ইসি মাহবুব তালুকদার নেতানিয়াহুর পদত্যাগ চায় অর্ধেকের বেশি ইসরাইলি! শহীদ শেখ রাসেলের ৫৭তম জন্মদিন আজ অবৈধ বসতির সমালোচনা করায় জাতিসংঘ মানবাধিকার কর্মীদের ভিসা বন্ধ করল ইসরাইল

ড্রাইভার মালেকদের মতো আরো দুর্নীতিবাজ রয়েছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

এমসি নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ১৫ বার পড়া হয়েছে

অনিয়ম-দুর্নীতি করে শতকোটি টাকার মালিক বনে যাওয়া স্বাস্থ্য অধিদদপ্তরের ডিজির ড্রাইভার (সাময়িক বরখাস্ত) আবদুল মালেক ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মেডিকেল এডুকেশন শাখার প্রশাসনিক কর্মকর্তা (সাময়িক বরখাস্ত) মো. আবজাল হোসেনের মতো আরও দুর্নীতিবাজ রয়েছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

সোমবার সচিবালয়ে নিজ দফতরে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

গত ২০ সেপ্টেম্বর রাজধানীর তুরাগ থানার কামারপাড়ার বামনের টেক এলাকার বাসা থেকে মালেককে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। এরপরই বেরিয়ে আসে তার নানা অনিয়ম ও দুর্নীতি করে কোটিপতি হওয়ার তথ্য। তৃতীয় শ্রেণির কর্মচারী হলেও মালেকের ঢাকার বিভিন্ন স্থানে একাধিক বিলাসবহুল বাড়ি, গাড়ি ও ফ্ল্যাট এবং বিপুল নগদ টাকা রয়েছে বলে তথ্য পাওয়া যাচ্ছে। বর্তমানে তিনি ১৪ দিনের রিমান্ডে আছেন।

অন্যদিকে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মেডিকেল এডুকেশন শাখার প্রশাসনিক কর্মকর্তা (সাময়িক বরখাস্ত) মো. আবজাল হোসেনও একই পথ অবলম্বন করে কয়েশ’ কোটি টাকার মালিক হয়েছেন। তার বিরুদ্ধে ২৬৩ কোটি ৭৭ লাখ ৬৪ হাজার ৭২৩ টাকা মানিলন্ডারিং, ৫ কোটি ৯০ লাখ ২৮ হাজার ৯২৬ টাকার সম্পদের তথ্যগোপনসহ ৩১ কোটি ৫১ লাখ ২৩ হাজার ৪৪ টাকার জ্ঞাত আয়বহির্ভুত সম্পদ অর্জনের অভিযোগ রয়েছে। এ ছাড়া তার বিরুদ্ধে মালয়েশিয়া, অস্ট্রেলিয়া ও কানাডায় অর্থপাচারের তথ্য পাওয়া গেছে। শুধু তাই নয়, আবজাল তার স্ত্রী রুবিনা খানমের নামেও বিপুল পরিমাণ স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি গড়েছেন। তাদের বিরুদ্ধে দুটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

দীর্ঘদিন পলাতক থাকার পর গত ২৬ আগস্টআবজাল হোসেন ঢাকার মহানগর সিনিয়র স্পেশাল জজ কেএম ইমরুল কায়েশের আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন চান।শুনানি শেষে জামিন আবেদন নাকচ করে বিচারক তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

স্বাস্থ্য খাতে এমন দুর্নীতি নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, আমাদের সময়ে কেউ দুর্নীতি করে রেহাই পায়নি। তাছাড়া ড্রাইভার মালেকরা একদিনে তৈরি হয়নি। মালেক ও আবজালদের মতো আরও দুর্নীতিবাজ রয়েছে, আমরা সবাইকে চিহ্নিত করে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেব। তাদের সবার বিরুদ্ধে অনুসন্ধান চলছে।

সূত্র: বাংলাদেশ জার্নাল

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর
© All rights reserved © 2018 mcnewsbd24.Com
Customized by Mcnewsbd24.Com