বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর ২০২০, ০৮:৩৩ অপরাহ্ন
নোটিশ ::
প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। বিস্তারিত জানতে : 01712-758460 | প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। বিস্তারিত জানতে : 01712-758460 | প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। বিস্তারিত জানতে : 01712-758460 |
শিরোনাম ::
তেজগাঁওয়ে এপেক্স কারখানায় ভয়াবহ আগুন প্রতি কেজি আলু আজ থেকে ৩৫ টাকা বিক্রি হবে । পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌ-রুটে পারাপারে অপেক্ষায় সহস্রাধিক যানবাহন যাত্রী দুর্ভোগ । মেখল মাদরাসার সাবেক উস্তাদ, প্রবীণ আলেম মুফতি গোলাম কাদেরের ইন্তেকাল ঘরের বাইরে বের হতে মাস্ক ব্যবহার করুন : প্রধানমন্ত্রী স্পিকারের সঙ্গে বাংলাদেশের নব নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার সাক্ষাৎ ফের যুক্তরাষ্ট্র যাচ্ছেন আলোচিত ইসি মাহবুব তালুকদার নেতানিয়াহুর পদত্যাগ চায় অর্ধেকের বেশি ইসরাইলি! শহীদ শেখ রাসেলের ৫৭তম জন্মদিন আজ অবৈধ বসতির সমালোচনা করায় জাতিসংঘ মানবাধিকার কর্মীদের ভিসা বন্ধ করল ইসরাইল

নাগার্নো-কারাবাখ ছেড়ে পালাচ্ছে সাধারণ আর্মেনীয়রা

mcnews
  • আপডেট সময় শুক্রবার, ৯ অক্টোবর, ২০২০
  • ২৪ বার পড়া হয়েছে

আজারবাইজান ও আর্মেনীয়ার যুদ্ধে প্রাণ হারাচ্ছেন সাধারণ মানুষ। গুলি ও বোমায় বিধ্বস্ত নাগার্নো-কারাবাখে বসবাসরত সাধারণ আর্মেনীয়রা বাড়ি ছেড়ে পালাতে শুরু করেছেন।

যুদ্ধ বন্ধের এখনো কোনো ইঙ্গিত নেই। ১১ দিনে প্রবেশ করল নাগার্নো-কারাবাখ নিয়ে আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের যুদ্ধ। তারই মধ্যে আর্মেনীয়ার মদতপুষ্ট কারাবাখের সন্ত্রাসী গোষ্ঠিরা জানিয়েছে, তাদের প্রধান শহর স্টেপানাকার্তে বসবাসরত অর্ধেকরও বেশি আর্মেনীয় এখন গৃহহীন। অন্যদিকে যুদ্ধ বন্ধের জন্য আবারো সরব হয়েছে রাশিয়া, ফ্রান্স ও আমেরিকা। ন্যাটোর পক্ষ থেকেও দ্রুত যুদ্ধ বন্ধ করে শান্তি আলোচনার প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। কিন্তু কোনো দেশই লড়াই থামানোর ইঙ্গিত দেয়নি।

এদিকে কার্যত ধ্বংসাবশেষে পরিণত হয়েছে কারাবাখের মূল শহর। আর্মেনীয়ার মদতপুষ্ট সেখানকার বিচ্ছিন্নতাবাদীদের বক্তব্য, আজারবাইজানের সেনাবাহিনীর তীব্র আক্রমণে হাজার হাজার আর্মেনীয় বাড়ি ছেড়ে পালাচ্ছেন। শহর জুড়ে পড়ে রয়েছে বোমা। বহু বোমা না ফাটা অবস্থায় রাস্তায় ছড়িয়ে রয়েছে। যখন তখন বিস্ফোরণের আশঙ্কা। বহু বাড়ি বোমার আঘাতে ভেঙে পড়েছে। ধ্বংসস্তূপ ঘেঁটে প্রয়োজনীয় জিনিস সংগ্রহ করে পালাচ্ছেন সাধারণ আর্মেনীয়রা।

আর্মেনীয়ার হিসেব অনুযায়ী নাগার্নো-কারাবাখে প্রায় সাররিক-বেসামরিক মিলিয়ে ৩০০ মানুষের মৃত্যু হয়েছে। তবে বিশেষজ্ঞদের বক্তব্য, মৃতের সংখ্যা আরো বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তারই মধ্যে যুদ্ধ অব্যাহত। আর্মেনীয়া এখনো আজারবাইজানের বিভিন্ন শহরে গোলাবর্ষণ করছে। আজারবাইজানও গোলাবর্ষণ চালিয়ে যাচ্ছে।

ইরান আগেই জানিয়েছিল, যেভাবে দুই দেশের মধ্যে যুদ্ধ শুরু হয়েছে, তাতে যেকোনো দিন তা আরো ছড়িয়ে পড়তে পারে। দুই দেশের যুদ্ধে অন্য দেশের যোদ্ধারাও যোগ দিচ্ছেন বলে ইরানের দাবি। সিরিয়া ইতোমধ্যেই স্বীকার করেছে, তাদের দেশের বেশ কিছু যোদ্ধা আজারবাইজানের হয়ে লড়াই করছে। তুরস্কও যুদ্ধে সরাসরি যোগ দিয়েছে বলে অভিযোগ।

এই পরিস্থিতিতে দ্রুত অবস্থার পরিবর্তনের জন্য বৈঠকে বসতে পারে আমেরিকা, ফ্রান্স ও রাশিয়া। জার্মানিও যুদ্ধ বন্ধের জন্য আবেদন করেছে। জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী হাইকো মাস এ বিষয়ে জার্মান পার্লামেন্টেও আলোচনা করেছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর
© All rights reserved © 2018 mcnewsbd24.Com
Customized by Mcnewsbd24.Com