রবিবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৫:৩৯ পূর্বাহ্ন
নোটিশ ::
প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। বিস্তারিত জানতে : 01712-758460 | প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। বিস্তারিত জানতে : 01712-758460 | প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। বিস্তারিত জানতে : 01712-758460 |

বেতন ফি মওকুফসহ ছাত্র ইউনিয়নের ৮ দাবি .

এমসি নিউজ
  • আপডেট সময় রবিবার, ১৭ জানুয়ারী, ২০২১
  • ১৩ বার পড়া হয়েছে

করোনা মহামারীর কারণে বন্ধ রয়েছে দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। মহামারীতে শিক্ষার্থীদের আর্থিক অবস্থার কথা বিবেচনা করে বেতন-ফি মওকুফের আহবান জানিয়েছে বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন। সাথে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ যাতে দীর্ঘায়িত না হয় সেই লক্ষ্যে বিশেষজ্ঞদের মতামত নিয়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার রোডম্যাপ তৈরির আহবান জানিয়েছে তারা।

শনিবার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বেতন ফি মওকুফ, আবাসিক হল খুলে দিয়ে পরীক্ষার আয়োজন, বাণিজ্যিক কোর্স বন্ধসহ অগ্রাধিকার ভিত্তিতে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের বিনামূল্যে করোনা ভ্যাকসিন দেয়ার দাবি জানায় সংগঠনটি।

সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনটি তাদের আট দফা দাবিতে পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা করেন। আগামী ১৮ জানুয়ারি ঢাকায় বিক্ষোভ মিছিল, ২৫ জানুয়ারি সারাদেশে ছাত্র-শিক্ষক অভিভাবক মতবিনিময় সভা ও ২৭ জানুয়ারি থেকে সারাদেশে গণস্বাক্ষর কর্মসূচির আয়োজন করবে তারা। গণস্বাক্ষর সংগ্রহ শেষে শিক্ষা মন্ত্রণালয় বরাবর স্মারকলিপিও প্রদান করবে বলে জানিয়েছে সংগঠনটি।

সংবাদ সম্মেলনের লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ছাত্র ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় সংসদের সভাপতি ফয়েজ উল্লাহ। তিনি বলেন, অনলাইন ক্লাসের মাধ্যমে বিপুল পরিমাণ শিক্ষার্থীকে ছাড়াই পাঠ-কার্যক্রম পরিচালনার চেষ্টা করা হচ্ছে। পর্যাপ্ত অবকাঠামোগত সুবিধা না থাকা, ইন্টারনেটের মন্থরগতি, ডিভাইসের অভাবে অধিকাংশ দরিদ্র শিক্ষার্থীই অনলাইন ক্লাসের বাইরে। শতভাগ শিক্ষার্থীদের আগ্রহ নিশ্চিত না করেই চলেছে অনলাইন ক্লাস-পরীক্ষা।

লিখিত বক্তব্যে তিনি আরো বলেন, বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো টিউশন ফি আদায় করার ঘৃণ্যতম প্রচেষ্টায় লিপ্ত হয়েছে। অ্যাসাইনমেন্টের নামে নেয়া হচ্ছে নামে-বেনামে ফি। অন্যদিকে বাতিল হওয়া ২০২০ সালের এইচএসসি পরীক্ষার রেজাল্ট না দেয়ায় ধোঁয়াশায় বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তিচ্ছুরা। অন্যদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান শিক্ষার্থীরা পড়ছে সেশনজট সঙ্কটে, যা সামাল দিতে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো একেবারেই অপ্রস্তুত।

এছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে চলমান রয়েছে বাণিজ্যিক কোর্স, হলগুলো অছাত্রদের দখলদারিত্ব ও এই ভয়ঙ্কর দুর্দশা দুর করে বিশেষজ্ঞদের মতামত নিয়ে একটি পরিকল্পিত রোড ম্যাপ তৈরি করে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলাসহ আট দফা দাবি জানায় তারা। দাবিগুলো হলো–

১. করোনাকালে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বেতন ফি মওকুফ করতে হবে৷ অ্যাসাইনমেন্টের নামে আদায়কৃত ফি ফেরত দিতে হবে।

২. নামে-বেনামে ফি আদায়কারী প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

৩. বিশেষজ্ঞদের মতামত নিয়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার রোডম্যাপ ঘোষণা করতে হবে।

৪. সেশনজট রোধে দ্রুত এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের ফল প্রকাশ করতে হবে। সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সেশনজট রোধে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে।

৫. পাঠ্যপুস্তকে সাম্প্রদায়িকীকরণ বন্ধ করতে হবে।

৬. শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে আবাসিক হল খুলে দিয়ে, আবাসনের ব্যবস্থা করে পরীক্ষা নিতে হবে। অছাত্র-সন্ত্রাসীদের হল থেকে বিতাড়িত করতে হবে।

৭. সকল বিশ্ববিদ্যালয়ে বাণিজ্যিক কোর্স বন্ধ করতে হবে।

৮. অগ্রাধিকারভিত্তিতে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের বিনামূল্যে ভ্যাকসিন দিতে হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর
© All rights reserved © 2018 mcnewsbd24.Com
Customized by Mcnewsbd24.Com